করোনায় লৌহজংয়ের কাজীর পাগলা গ্রামের বাবা ও তার ছেলে আমেরিকাতে মৃত্যুবরণ! মা হাসপাতালে

0
3827
শফিকুল ইসলাম ও একমাত্র সন্তান ছেলে ডা.শাকিল সালেহীন (ছবি সংগৃহীত )

প্রকাশিত :রবিবার,২৯ মার্চ ২০২০ ইং ।। ১৫ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ।

বিক্রমপুর খবর : অনলাইন ডেস্ক : করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে লৌহজং উপজেলার কাজীর পাগলা গ্রামের বাবা ও তার ছেলে আমেরিকাতে মৃত্যুবরণ করেছেন। তাহারা হলেন শফিকুল ইসলাম ও একমাত্র সন্তান ছেলে ডা.শাকিল সালেহীন। বাংলাদেশী সময় শুক্রবার ২৭ মার্চ রাত ৩ টায় বাবা শফিকুল ইসলাম ও ছেলে ডা. শাকিল শুক্রবার বিকাল ২ টায় ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহী রাজিউন)।

শফিকুল ইসলামের স্ত্রী রাশিদা খানমও বর্তমানে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে একই কারণে হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

তাদের গ্রামের বাড়ী বিক্রপুরের লৌহজং উপজেলার কাজীর পাগলা গ্রামের মৌলভী স্যাররের বাড়ি বা তালুকদার বাড়ি।

শফিকুল ইসলাম এর ছোট ভাই শহিদুল ইসলাম ঢাকায় থাকেন। শহিদুল ইসলাম ভালো ফুটবলার ছিলেন এবং এক সময় কাজির পাগলা বাজারের সবচেয়ে বড় ঔষধের দোকানটি তাহাদের ছিল। আরেক ভাই হলেন আহসান সুমন রোটারী ক্লাব অব নারায়ণগঞ্জ রিভার সাইড এর সাবেক সভাপতি।তিনি বসবাস নারায়ণগঞ্জের মাসদাইরে।

শফিকুল ইসলাম ১৯৯১ সালে ডিবি লটারীতে আমেরিকায় যান। দীর্ঘ দিন যাবত সেখানেই বসবাস করতে ছিলেন।

বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের মহাসচিব (অর্থ ও পরিকল্পনা) আলহাজ্ব আবুল বাসার বলেন প্রথমে আমি হতবাক হয়ে যাই দুঃসংবাদটি শুনে বিশ্বাস করতে পারছিলাম না ।শফিকুল ইসলাম আমার ক্লাস ফ্রেন্ড ওর সাথে আমার খুবই ভালো সম্পর্ক ছিলো। আমরা একসাথে ১৯৭২ সালে কাজির পাগলা এ,টি ইনস্টিটিউশন (হাই স্কুল)থেকে এস এস সি পাশ করি।

কাজির পাগলা গ্রামের মুন্সিগঞ্জ জেলা যুব লীগের দপ্তর সম্পাদক মোঃ অলিউর রহমান সত্যতা স্বীকার করে বলেন,মর্মান্তিক এই দুঃসংবাদে  আমাদের কাজির পাগলা গ্রামে একটি শোকের ছায়া নেমেছে। আমার সাথে শফিকুল ইসলাম এর ছোট ভাই শহিদুল ইসলাম মামার কাছ থেকে প্রথমে জানতে পাই।একসময় গ্রামের সকলের কাছে খুব পরিচিত মুখ ছিলেন শফিকুল ইসলাম ।

একটি উত্তর দিন

দয়া করে আপনার কমেন্টস লিখুন
দয়া করে আপনার নাম লিখুন