সৈয়দ হাসান ইমামের আত্মজীবনীগ্রন্থ “আকাশ আমায় ভরলো আলোয়”-এর প্রকাশনা উৎসবে আমন্ত্রণ

0
60
সৈয়দ হাসান ইমামের আত্মজীবনীগ্রন্থ “আকাশ আমায় ভরলো আলোয়”

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার,২৭ জুন ২০১৯। ১৩ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ।

বিক্রমপুর খবর ডেস্ক: সৈয়দ হাসান ইমামের আত্মজীবনীগ্রন্থ “আকাশ আমায় ভরলো আলোয়”-এর প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩০ জুন, ২০১৯: রবিবার: বিকেল পাঁচটায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে। সৈয়দ হাসান ইমামের আত্মজীবনীগ্রন্থ “আকাশ আমায় ভরলো আলোয়” বইটি  প্রকাশনা করেছে পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স লিমিটেড।

 বইটির প্রকাশনা উৎসবে সকলকে সবান্ধব আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

বিশিষ্ট অভিনেতা ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম। আমাদের সাংস্কৃতিক জগতের পুরোধা ব্যক্তিত্ব। যিনি বাঙালির দীর্ঘ সংগ্রামের পথে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। সংকটে-সংগ্রামে এখনো তিনি সাহসী মুখ। শিল্প ও জীবন সংগ্রামের যে ঐক্য হাসান ইমামের কর্মময় জীবন থেকে আমরা পাই,তা আমাদের আগামী দিনে পথ যাত্রার পাথেয়।

হাসান ইমাম ১৯৫৩ সালে ছাত্র অবস্থায় মঞ্চনাটকের মধ্য দিয়ে অভিনয় জীবন শুরু করেন। অভিনয়ের পাশাপাশি তিনি বৈষম্যহীন সমাজ ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠায় সারা জীবন কাজ করেছেন। তিনি একাধারে প্রকৌশলী, আবৃত্তি শিল্পী,অভিনেতা,লেখক,সংগঠক ও অসাম্প্রদায়িক আন্দোলনের পুরোধা ব্যক্তিত্ব। এ পর্যন্ত হাসান ইমাম ১৫০টি ছবি,৫০টি মঞ্চনাটক,অসংখ্য টিভি নাটকে অভিনয় করেছেন।

সৈয়দ হাসান ইমাম শ্রেষ্ঠ অভিনেতা ও শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র নির্মাতা হিসাবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ও সাংবাদিক সমিতি পুরস্কার পান।  অভিনয়ের স্বীকৃতিস্বরূপ বঙ্গবন্ধু পুরস্কার,মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য সিকোয়েন্স পুরস্কার, শ্রেষ্ঠ বাঙালি পুরস্কারসহ (পশ্চিমবঙ্গ) নানা পুরস্কার, তিনি  বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সম্মান একুশে পদকসহ বহু জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ করেন। কয়েকটি আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে হাসান ইমাম জুরির দায়িত্ব পালন করেন।  এছাড়া ২০১৬ সালে তিনি স্বাধীনতা পুরস্কার ২০১৬ লাভ করেন।

সৈয়দ হাসান ইমামের আত্মজীবনী নিয়ে ২০১৬ সালের ২৬ জানুয়ারি একটি জাতীয় দৈনিকে খবর ছেপেছিল।  সৈয়দ হাসান ইমাম এর শুভাকাঙ্ক্ষী,ভক্ত-দর্শকের অনুরোধে তিনি এই আত্মজীবনী লেখা শুরু করেন তখন থেকে। অনেক দিন ধরে তিনি এটি লিখেছেন।  তার এ আত্মজীবনীতে শৈশব-কৈশোর,অভিনয় জীবন এবং ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের নানা স্মৃতি বিশেষভাবে তুলে ধরা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে হাসান ইমাম তখন বলেছিলেন, “ অনেকেই আমাকে আত্মজীবনী লেখার জন্য বলে আসছিল। কিন্তু নানা কাজে ব্যস্ত থাকায় লেখা শুরু করতে পারিনি। তাছাড়া আমি তো পেশাদার লেখক নই,যে চাইলেই লিখতে পারব। তাই ধীরে-সুস্থে কাজটি করছি। এখন পান্ডুলিপির কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। তবে কোন প্রকাশনী থেকে এটি প্রকাশ করব, তা এখনও  ঠিক করিনি। এই আত্মজীবনীতে আমার ব্যক্তিজীবন,সাংস্কৃতিক জীবন,অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়ার আন্দোলনসহ নানা বিষয় তুলে ধরেছি। এটি প্রকাশ হলে,আমাকে যারা পছন্দ করেন,তারা আমার সম্পর্কে বিশদভাবে জানতে পারবেন। ’’

একটি উত্তর দিন

দয়া করে আপনার কমেন্টস লিখুন
দয়া করে আপনার নাম লিখুন