কনকসার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে নানা আয়োজনে যথাযত মর্যাদায় ও ভাবগম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালিত হয়েছে

0
4
কনকসার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে নানা আয়োজনে যথাযত মর্যাদায় ও ভাবগম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালিত হয়েছে

প্রকাশিত:সোমবার ১৬ আগস্ট ২০২১ইং।। ১লা ভাদ্র ১৪২৮ বঙ্গাব্দ (শরৎকাল)।৬ই মহররম১৪৪৩ হিজরী।।

বিক্রমপুর খবর : অফিস ডেস্ক : আজ ১৫ আগস্ট,”জাতীয় শোক দিবস-২০২১”হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাত বার্ষিকী এবং জাতীয় শোক দিবস।কনকসার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে স্বাধীনতার মহান স্থপতি,সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে নানা আয়োজনে যথাযত মর্যাদায় ও ভাবগম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালিত হয়েছে।

কনকসার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এর পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবার এবং নিকটাত্মীয় সকলের এর প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করা হয় এবং ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে কনকসার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে হতদরিদ্র ও দুঃস্থদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুন্সিগঞ্জ দুই আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপিকা সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লৌহজং উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এবং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ ওসমান গনি তালুকদার, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের মহাসচিব (অর্থ ও পরিকল্পনা)আলহাজ্ব আবুল বাসার,লৌহজং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ আব্দুর রশিদ শিকদার।

আরও  উপস্থিত ছিলেন,লৌহজং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সেলিম আহমেদ মোড়ল, যুগ্ম সম্পাদক মেহেদি হাসান, যুগ্ম সম্পাদক শেখ মো.আনোয়ার হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক বি.এম শোয়েব,জেলা আওয়ামী লীগ এর উপ প্রচার সম্পাদক এবং উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান তোপাজ্জল হোসেন তপন,লৌহজং উপজেলা আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল আমিন মোড়ল,সাংগঠনিক সম্পাদক আবু ফয়সাল নিপু ফকির,তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আব্দুল ওয়াদুদ খান সহ উপজেলা আওয়ামীলীগের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।বঙ্গবন্ধু পরিষদ লৌহজং উপজেলা শাখার যুগ্ম সম্পাদক এবং গ্রামনগর বার্তার প্রকাশক খান নজরুল ইসলাম হান্নান, লৌহজং উপজেলা  যুবলীগের সভাপতি আলমগীর কবির খান,সাধারন সম্পাদক,মোঃ শাহজাহান খান সাজু,এইস এম আজিজুর রহমান, মো.শামীম আলম, মো.মিজানুর রহমান মোল্লা, মো.আবু নাসের রতন, মো. হুমায়ুন কবীর খোকা মৃধা, মো.শামীম মোড়ল, মো.মতুজা খান,মো.শফিকুল ইসলাম মাদবর,মো.বাদশা আলম, মো.রইস উদ্দিন রঞ্জু,মো.রঞ্জু মোল্লা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

লৌহজং উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগ এবং মহিলা আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা এবং স্থানীয় সম্মানিত ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কনকসার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ এবং অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন কনকসার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগেরসাধারন সম্পাদক নূর নবি মোস্তাক

হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাত বার্ষিকী এবং জাতীয় শোক দিবস। ইতিহাসের এই বর্বরোচিত হত্যাকাণ্ডে সেদিন প্রাণ দিয়েছেন সেনাবাহিনীর এক দল বিপথগামী সদস্যের বুলেটের নির্মম আঘাতে বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে সেদিন প্রাণ হারান তার সহধর্মিণী বেগম শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, তিন ছেলে শেখ কামাল, শেখ জামাল ও শিশুপুত্র শেখ রাসেল এবং দুই পুত্রবধূ সুলতানা কামাল ও রোজী জামাল, ভাই শেখ নাসের,বঙ্গবন্ধুর ভাগনে শেখ ফজলুল হক মনি, তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী আরজু মনি, ভগ্নিপতি আবদুর রব সেরনিয়াবাত, শহীদ সেরনিয়াবাত, শিশু বাবু, কর্নেল জামিল, আরিফ রিন্টু খানসহ বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবার এবং নিকটাত্মীয়সহ ২৬ জনকে ওই রাতে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়।
কনকসার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এর পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবার এবং নিকটাত্মীয় সকলের এর প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করা হয় এবং “১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে কনকসার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে হতদরিদ্র ও দুঃস্থদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কনকসার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ এবং অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন কনকসার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগেরসাধারন সম্পাদক নূর নবি মোস্তাক।

ইতিহাসের এই বর্বরোচিত হত্যাকাণ্ডে সেদিন প্রাণ দিয়েছেন সেনাবাহিনীর এক দল বিপথগামী সদস্যের বুলেটের নির্মম আঘাতে বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে সেদিন প্রাণ হারান তার সহধর্মিণী বেগম শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, তিন ছেলে শেখ কামাল, শেখ জামাল ও শিশুপুত্র শেখ রাসেল এবং দুই পুত্রবধূ সুলতানা কামাল ও রোজী জামাল, ভাই শেখ নাসের,বঙ্গবন্ধুর ভাগনে শেখ ফজলুল হক মনি, তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী আরজু মনি, ভগ্নিপতি আবদুর রব সেরনিয়াবাত, শহীদ সেরনিয়াবাত, শিশু বাবু, কর্নেল জামিল, আরিফ রিন্টু খানসহ বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবার এবং নিকটাত্মীয়সহ ২৬ জনকে ওই রাতে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়।

এছাড়া আজ ১৫ ই আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে কনকসার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এর প্রধান কার্যালয়ে আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল ও হতদরিদ্র ও দুঃস্থদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

 

নিউজটি শেয়ার করুন .. ..             

   ‘‘আমাদের বিক্রমপুর-আমাদের খবর।

আমাদের সাথেই থাকুন-বিক্রমপুর আপনার সাথেই থাকবে!’’

Login করুন : https://www.bikrampurkhobor.com

আমাদের পেইজ লাইক দিন শেয়ার করুন।        

একটি উত্তর দিন

দয়া করে আপনার কমেন্টস লিখুন
দয়া করে আপনার নাম লিখুন